সরকারি হাসপাতালে প্রথম ‘মিনিমালি ইনভেসিভ কার্ডিয়াক সার্জারি’ সম্পন্ন

স্বাস্থ্য

জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউট(এনআইসিভিডি)-তে রোববার একটি ‘মিনিমালি ইনভেসিভ কার্ডিয়াক সার্জারি’ সম্পন্ন করা হয়েছে। দেশের কোনো সরকারি হাসপাতালে এটি এ ধরনের প্রথম সার্জারি।


১২ বছর বয়সী নুপুর নামের এক কিশোরী রোগীকে সম্পূর্ণ অচেতন করে আড়াই ঘন্টায় এ সার্জারি করা হয়। এতে খরচ পড়ে মাত্র পাঁচ হাজার টাকা।
ডা. আশরাফুল হক সিয়ামের নেতৃত্বে ১০ জন ডাক্তারের একটি টিম এই অপারেশন পরিচালনা করেন। ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশনের প্রধান কার্ডিয়াক সার্জন অধ্যাপক ডা. ফারুক আহমেদ ও ডা. প্রশান্ত কুমার চন্দ উপস্থিত ছিলেন।
ডা. সিয়াম বলেন, ‘নুপুরের অবস্থা স্থিতিশীল। দুই-তিন দিন পর্যবেক্ষণের পর আমরা তাকে হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দেবো।’
নুপুর নামের এ কিশোরীর হার্টের উপরের অংশের দুই চেম্বারের মধ্যকার দেয়ালে একটি ফুটো হয়েছিল। চিকিৎসা বিজ্ঞানে এটিকে এট্রিয়াল সেপ্টাল ডিফেক্ট (এএসডি) বলে।


ডা. সিয়াম বলেন, এখন থেকে হাসপাতাল নিয়মিত এ ধরনের সার্জারি করবে এবং অন্য সার্জনদের প্রশিক্ষণ দেবে। কেননা হাসপাতালে এখন এ সার্জারির জন্য প্রয়োজনীয় সরঞ্জাম রয়েছে।
তিনি বলেন, ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন দেশে প্রথম এ ধরনের সার্জারি সম্পন্ন করে।


ডা. সিয়াম প্রয়োজনীয সরঞ্জাম আমদানির জন্য বিশেষ বাজেট বরাদ্দ দেয়ার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জানান।
‘মিনিমালি ইনভেসিভ কার্ডিয়াক সার্জারি’র ক্ষেত্রে ওপেন হার্ট সার্জারির বিকল্প হিসেবে বুকে একটি ছোট ছিদ্র করে অপারেশন করা হয়। এতে বুকের হাঁড় কাটতে হয় না। চিকিৎসকরা পাঁজরের মাঝখানে ছিদ্র করে কাজ করেন। এতে ব্যথা কম হয় এবং রোগী দ্রুত সেরে ওঠে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *