তালতলীতে ৫০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালের দাবিতে গণস্বাক্ষর ও মানববন্ধন কর্মসূচি

স্বাস্থ্য

মোঃ ইব্রাহিম সুমন বরগুনা প্রতিনিধি।

বরগুনা তালতলীতে ৫০ শয্যা বিশিষ্ট স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের দাবিতে উপজেলার ৭ টি ইউনিয়ন ও উপজেলা সদরে প্রায় লক্ষাধিক মানুষ একযোগে মানববন্ধন করেছে। একই সাথে গণস্বাক্ষর দিয়ে প্রধানমন্ত্রীর নিকট পাঠানো হয়েছে।সোমবার বেলা ১১ টায় উপজেলার গুরুত্বপূর্ণ বিভিন্ন স্থানে বিভিন্ন শ্রেনীপেশার প্রায় ১ লাখ মানুষ বৃষ্টিতে ভিতরে এ মানববন্ধন ও গনস্বাক্ষরে অংশগ্রহন করেন।।বরগুনা জেলার সর্বশেষ উপজেলা তালতলী। ২০১০ সালের ৬ মে আমতলী ভেঙ্গে তালতলীকে উপজেলা হিসাবে ঘোষণা করা হয়। উপজেলার বয়স ১০ বছর হলেও এখানে নেই হাসপাতাল।উপজেলায় আড়াই লক্ষ মানুষের বসবাস। এখানে নামেই আছে তালতলী ২০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতাল। কাজের বেলায় কিছুই নেই। ঔষধপত্র ও আউটডোর ইনডোর চালু নেই। ২০ শয্যা তো দুরের কথা ভর্তি করা হয়নি কোন রোগী। মূমুর্ষ কোন রোগী আসলে চিকিৎসার জন্য দুরে কোথাও নেয়ার জন্য নেই কোন এ্যাম্বুলেন্স ব্যবস্থা। সব মিলিয়ে সমস্যায় জর্জরিত তালতলী ২০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতাল। গুরুত্বপূর্ণ এ জনপদের মানুষদের জন্য ৫০ শয্যা হাসপাতাল এখন একান্ত প্রয়োজন। আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সাব-সেন্টার ২০ শয্যা বিশিষ্ট তালতলী হাসপাতাল। ডেপুটেশনের ডাক্তার দিয়ে চলছে চিকিৎসা সেবা। এই এলাকার উচ্চবিত্ত ও নিম্ন আয়ের মানুষের চিকিৎসার একমাত্র ভরসা এই হাসপাতাল। এখানে যদি কোন মানুষ দুর্ঘটনার শিকার হন তাকে পার্শ্ববর্তী উপজেলায় গিয়ে চিকিৎসা সেবা নিতে হয়। কখনো কখনো অন্য উপজেলায় যাওয়ার পথেই মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ে।এরই ধারাবাহিকতায় আজ পূর্নাঙ্গ হাসপাতাল চেয়ে উপজেলার ৭টি ইউনিয়নের ১০টি স্থানে এক যোগে ১ লাখ মানুষের সামাজিক নিরাপত্তা বজায় রেখে বৃষ্টিতে ভিজে মানবন্ধন ও প্রধানমন্ত্রীর বরাবর গনস্বাক্ষর পাঠানো হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *