কালিয়াকৈরে আগুনে পুড়েছে ৪টি দোকান ৯টি বসত ঘর

সারাদেশ

গাজীপুুর কালিয়াকৈর প্রতিনিধিঃ গাজীপুরের কালিয়াকৈরে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে ৪টি দোকান ও ৯টি বসত ঘর সম্পূর্ণ পুড়ে গেছে। বুধবার (১৭ নভেম্বর) বেলা ১২টার দিকে কালিয়াকৈর পৌরসভার পূর্ব চান্দরা এলাকার পরেশ চন্দ্র বর্ম্মনের বাড়িতে এই অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে। পরে খবর পেয়ে কালিযাকৈর ফায়ার সার্ভিসের ২টি ইউনিট গিয়ে এক ঘন্টা প্রচেষ্ঠায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। অগ্নিকান্ডের কারণ ও ক্ষয়ক্ষতির পরিমান জানা সম্ভব হয়নি।

এলাকাবাসী ও ফায়ার সূত্রে জানা যায়, কালিয়াকৈর উপজেলা পূর্বচান্দনা ছাপড়া মসজিদ এলাকায় পরেশ বর্মনের বাসার বাড়িতে এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। বুধবার দুপুরে ওই বাসা বাড়ির একটি কক্ষে আগুনের সূত্রপাত হয়। মুহুর্তের মধ্যে আগুন ওই বাসা বাড়ির অন্যান্য কক্ষে ও দোকানে ছড়িয়ে পড়ে। আগুন নেভাতে গিয়ে ব্যর্থ হয়ে ফায়ার সার্ভিসকে খবর দেয় এলাকাবাসী। খবর পেয়ে কালিয়াকৈর ফায়ার সার্ভিস দুটি ইউনিট ঘটনাস্থলে পৌঁছে ১ঘন্টা চেষ্টার পর আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।  ততক্ষণে  আগুনে ওই বাড়ির চারটি কক্ষ ও নয়টি দোকান পুড়ে যায়। তবে তাৎক্ষণিকভাবে আগুনের সূত্রপাত ও ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ জানাতে পারেনি ফায়ার সার্ভিস।

অগুনে ক্ষতিগ্রস্ত খেলারাণী জানান, সুনামগঞ্জের ধীরাই থানার গাজিয়াগাঁও গ্রাম থেকে এসে প্রায় দুই দশক ধরে ঐ পরেশ চন্দ্র বর্ম্মনের বাসায় ভাড়া থেকে এখানে মুদি দোকান পরিচালনা করে সংসার চালাচ্ছিলেন। আজ অগ্নিকান্ডে তারা সর্বশান্ত হয়ে গেলেন।

কালিয়াকৈর পৌরসভার ৮নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর সারোয়ার হোসেন আকুল জানায়, বেলা ১২টার দিকে পরেশ চন্দ্র বর্মনের বাড়ির ভাড়া দেওয়া একটি কক্ষে অগ্নিকান্ডের সূত্রপাত হয়। খুব দ্রুত আশ-পাশের আরো ৮টি বসত ঘর ও ৪টি দোকানে আগুন ছড়িয়ে পড়ে। সে সময় বাড়ির ভাড়াটিয়া নারী পূরুষ সকলেই বিভিন্ন কারখানায় কর্মস্থলে থাকায় আগুন নেভাতে এবং ফায়ার সার্ভিসকে খবর দিতে পারেননি। ফলে আগুনে ঐসব পরিবারে সর্বস্ব শেষ হয়ে যায়।

কালিয়াকৈর ফায়ার সার্ভিসের ষ্টেশন কর্মকর্তা  সাইফুল ইসলাম জানান, খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের দুইটি ইউনিট ১ঘন্টা ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন। তবে  তাৎক্ষণিকভাবে আগুনে লাগার কারন জানা যায়নি।

কালিয়াকৈর পৌরসভার মেয়র মজিবুর রহমান জানান, ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার গুলোকে ক্ষতিপূরনে দেয়া হবে। এসময় কালিয়াকৈর পৌরসভার ৮নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর সারোয়ার হোসেন আকুলসহ পৌরসভার কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *