ঈদযাত্রা-ঘরমুখো মানুষের ঢল ঠেকাতে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন-রাস্তা ফাঁকা!

জাতীয়

হেলাল শেখঃ ঈদের ছুটিতে ঘরমুখো মানুষের ঢল ঠেকাতে রাস্তা-ঘাটে, গুরুত¦পূর্ণ স্থানে অতিরিক্ত পুলিশ ও বিজিবি মোতায়েন করেছে সরকার-সকল রাস্তা-ঘাট এখন ফাঁকা।
সোমবার (২ মে ২০২২ইং) সরেজমিনে দেখা যায়, গুরুত্বপূর্ণ স্থান ও রাস্তা-ঘাটে অতিরিক্ত পুলিশ ও বিজিবি মোতায়েন করা হয়েছে। গত রাতে গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেন বিআরইডবিøউটিসির চেয়ারম্যান। তিনি বলেন, মানিকগঞ্জ ও মুন্সিগঞ্জ জেলা প্রশাসনের সহযোগিতায় প্রয়োজনীয় সংখ্যক অতিরিক্ত পুলিশ ও বিজিবি মোতায়েন করা হয়েছে। গত তিনদিন আগে থেকেই ঘরমুখো মানুষ ছুটছেন বাড়ি যাওয়ার জন্য। গতকাল বিকেলে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়ের সময় জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারগণ বলেন, বিজিবির তিনটি টিম এর মধ্যে একটি টিম মানিকগঞ্জের প্রবেশ মুখ ধল্লায়, দ্বিতীয় টিম বারবাড়িয়া ও একটি টিম পাটুরিয়া ঘাট এলাকায় কাজ করছে।


রবিবার দিবাগত রাত ২টায় কথা হয় ঢাকা জেলা পুলিশের সাভার ট্রাফিক জোনের জামগড়া “ট্রাফিক পুলিশ বক্সের অফিসার ইনচার্জ (টিআই) মোঃ সোহেল রানা’র সাথে” তিনি গণমাধ্যমকে বলেন, দিনে গাড়ির চাপ থাকলেও রাতে রাস্তা ফাঁকা, এখন রাস্তা ক্লিয়ার আছে, কোনো যানজট নেই। তিনি আরও বলেন, গত কয়েক বছর ঈদের সময় থেকে এ বছর ঘরমুখো মানুষ ভালোভাবে নিরাপদে বাড়ি যেতে পারছেন। তবে বাংলাদেশ পুলিশ এ বছর বিশেষ উদ্যোগ নিয়েছে বলে টিআই সোহেল রানা জানান, তা হলো-রাস্তায় এখন কোনো গাড়ি নষ্ট হলে আলাদা মেকার রাখা হয়েছে তারা জরুরি ভাবে গাড়ি ঠিক করে রাস্তা ক্লিয়ার রাখা হবে, এর কারণে এ বছর ঈদে কোনপ্রকার যানজট ছাড়াই মানুষ ঘরে ফিরছেন, সুন্দর সেবা পেয়ে অনেকেই পুলিশ বাহিনীসহ সংশ্লিষ্টদেরকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন। পুলিশই জনতা, জনতাই পুলিশ, সেবাই পুলিশের ধর্ম।
উত্তরবঙ্গ জনকল্যান পরিষদ এর সভাপতি মোঃ সাইফুল ইসলাম জয় (হেলাল শেখ) বলেন, পুলিশ বাহিনী ও সাংবাদিকরা সবসময় জনকল্যাণে কাজ করেন, যেমনঃ করোনার মধ্যে মানুষ ঘরমুখো যখন- সে সময়ে পুলিশ ও সাংবাদিকরা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে দায়িত্ব পালন করেন। ধন্যবাদ মানবিক পুলিশ ও সাংবাদিকদেরকে। তিনি আরও বলেন, জীবনে মানুষ বেঁচে থাকলে ঈদের আনন্দ পরেও করতে পারবেন, তাই সরকারি আইন মেনে চলুন, তিনি আরও বলেন, রাস্তা-ঘাটে যেভাবে মানুষের ঢল ছিলো ২-৩দিন। এখন রাস্তা ফাঁকা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *